ই-কমার্স (e Commerce) কি এবং ই-কমার্স ব্যবহারের সুবিধাসমূহ কি কি?

বর্তমানে ই-কমার্স (e Commerce) অতি পরিচিত একটি শব্দ বিশেষ করে যাদের কম্পিউটার ইন্টারনেট সম্পর্কে ন্যুনতম ধারণা আছে তারা এই ব্যাপারে বিশদভাবে জানে। এর বাইরেও সাধারণ মানুষও কম-বেশী এ ব্যপারে ওয়াকিবহাল। প্রকৃতপক্ষে ই-কমার্স (e Commerce) হচ্ছে ইন্টারনেট ভিত্তিক একটি ব্যবসা প্ল্যাটফর্ম, যেখানে ব্যাবসা বাণিজ্যের সম্পূর্ন প্রক্রিয়াটিই সংঘটিত হয় ইন্টারনেট কানেক্টেড কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ট্যাব বা মোবাইলের মাধ্যমে। এই প্রক্রিয়ায় হাজারো পণ্যের ভিড়ে নিজের চাহিদা ও পছন্দমাফিক পণ্য পছন্দ থেকে শুরু করে, পণ্যের দাম পরিশোধ সবই সম্পন্ন হয় ইন্টারনেটের মাধ্যমে।

ই-কমার্স (e Commerce) সাইট কি?

প্রকৃতপক্ষে এক একটি ইকমার্স সাইট হচ্ছে এক একটি ডিপার্র্টমেন্টাল ষ্টোর।  আরও সহজবোধ্য ভাষায় বললে বলা যায়  একটি শপিংমলের ক্ষুদ্র প্রতিরুপ। কারন একটি ডিপার্র্টমেন্টাল ষ্টোরে বা শপিংমলে যত রকমের পণ্যের সমাহার রয়েছে এক একটি ই-কমার্স সাইটে তার চেয়ে খুব একটা কম পণ্যের সমাহার নেই। ঘরে বসে যে কোন ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে কোন ইকমার্স সাইটে ঢুকে হাজারো লক্ষ পণ্য একটার পর একটা দেখে নেওয়া যায়। পন্যের দাম ও বর্ণনা দেখে খুবই কম সময়ের মধ্যে নিজের চাহিদা মতো পন্য পছন্দ করে ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করে পণ্যের ডেলিভারি ঘরে বসে পাওয়া যায়। আবার অনেক ক্ষেত্রেই পন্য হাতে পেয়ে মুল্য পরিশোধ করা যায়। তবে উভয়ক্ষেত্রেই ক্রেতাকে পণ্যের জন্যে ঘরের বাইরে এক পাও ফেলতে হয় না। নিজের চাহিদা ও পছন্দঅনুযায়ী পণ্য ক্রয় করতে, শুধুমাত্র ঘরে বসে পণ্যের ডেলিভারি পেতে ৩-৪ ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়।

ই-কমার্স (e Commerce) ওয়েবসাইটের সুবিধাসমূহ কি কি?

  • পূর্বে ইকমার্স ব্যবসা পরিধি শুধুমাত্র বিলাস দ্রব্য যেমন; কসমেটিক্স, শাড়ী, জুতা, ছেলেদের, মেয়েদের, বাচ্চাদের পোষাক, কনজুমার ইলেকট্রোনিক্স, মোবাইল, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, ঘড়ি এসব ক্রয় বিক্রয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিলো।
  • বর্তমানে আমাদের দৈনন্দিন জীবনের ব্যবহার্য সমস্ত দ্রব্যসামগ্রী এর আওতাভুক্ত হচ্ছে। যেমন- চাল, ডাল, আটা, ময়দা, চিনি, তৈল থেকে শুরু করে মাছ মাংস ডিম দুধ সবই এখন ইকমার্স সাইটের মাধ্যমে ঘরে বসে পাওয়া যায়।
  • পূর্বে ইকমার্স সাইট ছিলো হাতে গোনা শহরভিত্তিক গুটি কয়েক আর এখন জোনভিত্তিক এমনকি এলাকাভিত্তিক সাইট তৈরি হচ্ছে। অবস্থা এমন দাড়িয়েছে যে অফিসে বেতন পেয়েই কম্পিউটার বা মোবাইলের মাধ্যেম আপনার এলাকা সংলগ্ন ইকমার্স সাইটকে আপনার সারা মাসের নিত্য ব্যবহার্য ভোগ্যপণ্যের একটি তালিকা সাবমিট করে দিলেন, আর অফিস থেকে বাসায় পৈাছেই দেখবেন আপনার দরজায় আপনার অর্র্ডারকৃত পণ্যের ডালি নিয়ে ডেলিভারিম্যান অপেক্ষা করছে।
  • ই-কমার্স সাইটের মাধ্যমে পণ্য ক্রয় ও টাকা লেনদেন কতটা যুক্তিসঙ্গত ও ঝুকিমুক্ত। ইকমার্স ব্যবসা ও ইকমার্স সাইটে ক্রয়-বিক্রয়ের একটি চমকপ্রদ ও বিস্ময়কর কিন্তু অপরিহার্য্য অনুষঙ্গ হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসে একটি বা দুটি ক্লিকের মাধ্যমে টাকা পয়সা লেনদেন ও পণ্যের দাম পরিশোধ এবং এক্ষেত্রে একটি প্রশ্ন জাগা স্বাভাবিক যে এভাবে ক্রেডিট কার্ডের তথ্যাবলী দিয়ে টাকা

ই-কমার্স (e Commerce) -এ পয়সা লেনদেন কতটা ঝুকিমুক্ত?

আসলে এ ব্যাপারে কিছু বলার চেয়ে বাস্তব অবস্থা পর্যবেক্ষণ করলেই বুঝতে সুবিধা হবে। আপনি জেনে অবাক হবেন যে বাংলাদেশে ই-কমার্স ব্যবসার এতগুলো বছর পার হয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত কোন গ্রাহক তাদের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন করতে গিয়ে কোন প্রতারণার শিকার হননি। অথবা গ্রাহকরা তাদের ব্যাংক ব্যালেন্সে কোনো প্রকার ত্রুটি বা জালিয়াতির সম্মুখীন অভিযোগ দেননি।  কাজেই এতে এর বিশ্বস্ততা ও নির্র্ভরযোগ্যতা সহজেই অনুমেয়। 

আসলে গ্রাহক যখন কোন পণ্য ক্রয়ের পর মূল্য পরিশোধের জন্য সাবমিট বা অর্র্ডার  এ জাতীয় বাটন প্রেস  করে তখন ফোন ভেরিফিকেশণ পদ্ধতির মাধ্যমে ক্রেতার ক্রেডিট কার্ডের তথ্যাবলী চাওয়া হয় এবং তা ই-কমার্স সাইট, অনলাইন পেমেন্ট গেইটওয়ে হয়ে গ্রাহকের/ক্রেতার ব্যাংক (যেখানে গ্রাহক/ক্রেতার ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে) সার্র্ভারে যায় ক্যাশআউট রিকোয়েষ্ট হিসেবে, তখন ব্যাংক সার্র্ভার প্রদেয় তথ্যাবলী যাচাই বাছাই করে ভেরিফিকেশন করে আপনার একাউন্ট থেকে প্রয়োজনীয় এমাউন্ট ডিডাক্ট করে ইকমার্স সাইটের একাউন্টে প্রেরণ করে। কাজেই এখানে ক্রেডিট কার্ডের তথ্যাবলী শুধু আপনি আর আপনার ব্যাংক সার্র্ভার জানছে, অন্য কেহ নয় এবং ডাটা প্রেরণের প্রতিটি পর্য্যায় এসএসএল (সিকিউরিটি সকেট লেয়ার-ডাটা ইনক্রিপশন প্রযুক্তির দ্বারা সুরক্ষিত; যেখানে আপনার প্রদেয় পাসওয়ার্র্ড সিকিউরিটি কী ছাড়া অন্য কেহ এটা পড়তে পাঠোদ্ধার করতে অপারগ)

কাজেই বুঝতেই পারছেন অসহনীয় যানজট, ঘন্টার পর ঘন্টা সময় নষ্ট করে ঘুরে ঘুরে দরদাম করে সাথে নগদ টাকা বহনের ঝুকি এসব থেকে এখন আপনি মুক্ত। এভাবেই ই-কমার্স (e Commerce) সাইট আমাদের জীবনকে আরো সুখী সুন্দর স্বাচ্ছন্দ্যময় এবং দ্রুত ও ঝুকিমুক্ত করতে সর্র্বতোভাবে সাহায্য করছে।

By | 2017-10-15T12:48:46+00:00 August 21st, 2017|ই-কমার্স, ইন্টারনেট|