হিসাব নিকাশের জন্য কিছু ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার

ব্যবসা বলতে সাধারণত লেনদেন বা হিসাব নিকাশকে বুঝায়। বর্তমানে ব্যবসার ধরনের অনেক পরিবর্তন আসছে। এর সাথে সাথে ব্যবসায়ীক কাজকে সহজ করার জন্য ব্যবসায়ীক ডিজিটাল হিসেব নিকেশের জন্য ব্যবহার হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার। ব্যবসায় পদ্ধতিকে সহজ এবং সুবিধা পেতে ব্যবহার করা যাবে এমন কিছু ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার নিয়ে নিম্নে আলচনা করা হ’লঃ-

১। অ্যাকাউন্টিং সফটওয়্যার

অ্যাকাউন্টিং ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার হচ্ছে যেকোনো ব্যবসার জন্য একটি মৌলিক সফটওয়্যার হিসেবে বিবেচনা করা যায়। ব্যবসায়ীক সকল প্রকারের লেনদেন, নগদ প্রবাহ, ব্যয়, ট্যাক্স ফাইলিংসহ  প্রয়োজনীয় ব্যবসায়িক তথ্য  সংরক্ষণের সুবিধা দিয়ে থাকে। একটি একাউন্টিং সফ্যটয়ার ব্যবহার করে একাধিক প্রতিষ্ঠানের হসেব নিকাশ রাখা যায়। এর পাশাপাশি প্রত্যেক শাখা প্রতিষ্ঠানের বর্তমান আর্থিক অবস্থান সম্পর্কে সঠিক তথ্য পাওয়া যাবে একস্থানে বসেই।

২। POS সফটওয়্যার

POS  সফ্যটওয়ার এমন একটি সফ্যটওয়ার যেখানে একই সাথে একাধিক  কাজ করা সম্ভব। প্রথম সুবিধা হচ্ছে পণ্য বিক্রির সাথে সাথে অনলাইন থেকে পণ্য বিক্রির রশিদ প্রদান করা যায়। এর জন্য একাধিক রশিদ বই এর প্রয়োজন হয় না। শুধুমাত্র একটি ইলেক্ট্রনিক্স রশিদ বই এর ফর্মেটই যথেষ্ঠ। অপর একটি হচ্ছে POS সফটওয়্যার এর সাথে ইনভেন্টরি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম যুক্ত করা যায় যেখানে ব্যবসায়ীক সকল পণ্য বা সার্ভিস গুলো সাজিয়ে রাখতে পারবেন। এতে করে প্রতিদিনের কি পরিমানে পণ্য বিক্রি হয়েছে এর সঠিক হিসেব রাখা যাবে। এই দুই ধরনের কাজের সুবিধা পাবেন সানসাইন আইটি এর পিওএস  সফটওয়্যারে।

৩। ERP সফটওয়্যার

ইআরপি এর পূর্ণরূপ হচ্ছে এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং অর্থাৎ প্রতিদিনের ব্যবসায়িক কার্যকলাপ। একটি ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে সাড়াদিনে অনেক ধরনের কার্যক্রম সংগঠিত হয়ে থাকে যেমনঃ- অ্যাকাউন্টিং, প্রকিউরমেন্ট, প্রকল্প ব্যবস্থাপনা, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা  এবং সাপ্লাই চেইন অপারেশন। এই সকল কার্যক্রম পরিচালনা করতে ব্যবহৃত হয় ERP সফটওয়্যার। শুধুমাত্র এতটুকুই নয় এর বাহিরে প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনা, বাজেট, পূর্বাভাস এবং সংস্থার আর্থিক ফলাফল সম্পর্কে রিপোর্ট প্রদান করে। এই সফটওয়্যার সাধারণত বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠানে ব্যবহার করা হয়।

৪। এইচআরএম সফটওয়্যার

একটি প্রতিষ্ঠানের একজন এইচআরএম এর উপরে প্রতিষ্ঠানের অনেক কিছু নির্ভর করে থাকে। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় যে বিষয়টি সেটি হচ্ছে হিউম্যান রিসোর্স। প্রতিষ্ঠান যদি অনেক বড় ধরনের হয়ে থাকে তাহলে এক দুইজনের পক্ষ্যে সকল মানুষের খোঁজ খবর বা মনিটরিং করা সম্ভব হয় না। এধরনের সমস্যার সমাধান দিবে একটি মাত্র সফটওয়্যার। এইচআরএম সফ্যটওয়ার ব্যবহার করে কর্মচারী ডেটা সংরক্ষণ করা, বেতন-ভাতা পরিচালনা, নিয়োগ, বেনিফিট, প্রশাসন, সময়, উপস্থিতি, কর্মচারী কর্মক্ষমতা ব্যবস্থাপনা এবং ট্র্যাকিং দক্ষতাসহ সকল ধরনের কাজ করা যাবে।

৫। ইনভেন্টরি সফটওয়্যার

ব্যবসায় এর ব্যয় কার্যকর করতে এবং সঠিকভাবে কর্ম পরিকল্পনার জন্য বিলিং সফটওয়্যার বিকল্প নেই। ইনভেন্টরি সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের প্রতিদিনের বিল, সাপ্তাহিক বিল, মাসিক বিল এবং বার্ষিক বিলসহ সকল ধরনের ব্যয় এর হিসেব বের করা যাবে কোন ধরনের ঝামেলা ছাড়াই। ম্যানেজমেন্ট গ্রাহকের চাহিদার উপর ভিত্তি করে তাদের ম্যানেজমেন্ট পরিচালনার গুরুত্ব কম বা বেশি করতে পারে।

উপরোক্ত সকল ব্যবসায়ীক সফটওয়্যার এর সার্ভিস নিতে পারবেন সানসাইন আইটি থেকে। আপনার চাহিদা অনুযায়ী সফ্যটওয়ার তৈরি করেও নিতে পারবেন এখান থেকে।